ভুয়া চিকিৎসককে অর্থদণ্ড

চাঁদপুর পৌর ১৩নং ওয়ার্ডের ওয়্যারলেস বাজারস্থ ভেষজ ইউনানী চিকিৎসা কেন্দ্রে মোবাইল কোর্টে এক প্রতারককে ১০ হাজার টাকা অর্থদ- প্রদান করা হয়েছে। দ-প্রাপ্ত ওই প্রতারক হলেন ভেষজ ইউনানী চিকিৎসা কেন্দ্রের স্বত্বাধিকারী নূরুন্নবী চৌধুরী (৪৪)।

এ ব্যাপারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মেহেদী হাসান মানিক সাংবাদিকদের জানান, নূরুন্নবী নামের এক ভুয়া চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসে। এতে জেলা প্রশাসক মহোদয়ে নির্দেশে ভেষজ ইউনানী চিকিৎসা কেন্দ্রে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করি। কোর্টে দীর্ঘদিন যাবত যৌনরোগসহ বিভিন্ন জটিল ও কঠিন রোগের চিকিৎসার নামে প্রতারণা, ভুয়া বিজ্ঞাপন প্রচার এবং ইউনানী ওষুধ বিক্রয়ের ড্রাগ লাইসেন্স না থাকার অপরাধে ওষুধ আইন ১৯৪০-এর ১৮(সি) ধারায় ভেষজ ইউনানী চিকিৎসা কেন্দ্রের নূরুন্নবীকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। একই দিনে শহরের ষোলঘর মেসার্স মেডিসিন স্টোরের স্বত্বাধিকারী হারুন আল রশিদকে সরকারি অনুমোদনবিহীন ওষুধ ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয় করার অপরাধে ওষুধ আইন ১৯৪০-এর ১৮(এ) ধারায় ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। উভয় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা প্রদান করেন ওষুধ তত্ত্বাবধায়ক মৌসুমী আক্তার, পেশকার মোঃ জহিরুল ইসলামসহ পুলিশ সদস্যবৃন্দ।