শাহরাস্তিতে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হলো দিনমজুরকে ঘাতক আটক

শাহরাস্তিতে প্রকাশ্য দিবালোকে নিজ বাড়িতেই খুন করা হলো দিনমজুর রফিকুল ইসলামকে। পরিবারের সদস্যদের সামনেই তাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে এলাকার কিছু বখাটে ও দুর্বৃত্ত যুবক। গতকাল ৩১ ডিসেম্বর বিকেলে শাহরাস্তি উপজেলার চেড়িয়ারা গ্রামের ষষ্ঠি বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে।

সংবাদ পেয়ে পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তিনি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানান এবং সঠিক বিচারের আশ্বাস দেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, চেড়িয়ারা উচ্চ বিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থী পরীক্ষার ফলাফল জানতে স্কুলে যায়। তাদের ক্ষুধা পেলে তারা স্কুলের সামনে সুমনের দোকানে খাবার খেতে যায়। এ সময় চেড়িয়ারা গ্রামের করের বাড়ির রাশেদ আহম্মেদ কালু দোকানে প্রবেশ করে তাদের চেয়ার ছেড়ে দিতে বলে। তখন ওই তিন ছাত্র চেয়ার ছেড়ে অন্য পাশে গিয়ে বসে। এরপর কালুর ছেলে মুন্না তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে। এক পর্যায়ে কালু তাদের মারধর করে। ছাত্র সাইফুল জানায়, কালু তাদের গলা চাপ দিয়ে ধরে মারধর করে। পরে তার সাথে থাকা বন্ধু এবায়দুল ও রাকিবুলসহ তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। বিষয়টি তারা তাদের পরিবারের সদস্যদের অবহিত করলে তারা স্কুলের প্রধান শিক্ষক মনির হোসেন ও ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল মজুমদারকে বিষয়টি অবহিত করেন। এরপর এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের পরামর্শে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ঘটনা জানানোর জন্যে বিকেল ৪টায় বাড়ি থেকে সিএনজি স্কুটারযোগে রওনা হলে পার্শ্ববর্তী এমরান হোসেনের দোকানের সামনে গেলে কালুসহ ১৫/২০ জনের একটি দল তাদের উপর হামলা করে। তখন তারা সেখান থেকে দৌড়ে বাড়িতে চলে আসে। তাদের পেছনে পেছনে হামলাকারীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের বাড়িতে এসে এলোপাতাড়ি হামলা করা শুরু করে। এ সময় দিনমজুর রফিকুল ইসলাম মাটি কাটার কাজ শেষে বাড়িতে আসেন। তিনি কোনো কিছু বুঝার আগেই হামলাকারীরা তাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে শুরু করে। তার মাথায় ও কপালে একাধিক কোপ লাগে। মুহূর্তের মধ্যেই তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। হামলাকারীরা চলে যাওয়ার পর এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েনিয়ে আসলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ওই দুর্বৃত্তদের হামলায় আরো বেশ কজন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে মিজানুর রহমানকে কুমিল্লা এবং মনছুর আহম্মেদ ও মহিউদ্দিনকে চাঁদপুরে উন্নত চিকিৎসার জন্যে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। নিহত রফিকের বাড়িতে হাজার হাজার লোক ভিড় করছে। এলাকাবাসী অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে।